Google Ads

অনলাইন শপিং নিয়ে কিছু কথা - ভয়ঙ্কর বিপদ



কলকাতা, নিজস্ব সংবাদদাতা: ভারতে ইন্টারনেট পোর্টাল এ জিও সিম আসার পর ইন্টারনেট এর জগতে একটা নতুন পয়েন্ট এসেছে। জিও সিম গ্রহীতাদেরকে এতটাই কম দামে সুযোগ দিচ্ছে যে দেশের প্রায় সমস্ত ঘরে ঘরে একটিভ ইন্টারনেট ইউসার তৈরী হয়েছে। সমগ্র বিশ্বে সব থেকে কম দামে ইন্টারনেট ভারতেই পাওয়া যায়। 2015 সালের পর থেকে 2020 এর এই সময় পযন্ত 50% একটিভ ইউসার বৃদ্ধি পেয়েছে। ইন্ডিয়া কে ডিজিটাল ইন্ডিয়া বানাতে অনেকে কিছুই কার্যকরী করা হয়েছিল। এই সময়কালে তার মধ্যেই অনলাইন পেমেন্ট, অনলাইন শপিং, অনলাইন লার্নিং, অনলাইন ডেটিং সবকিছু  নতুন কিছু নই। এসব কিছু এখন স্বাভাবিক হওয়ার উঠেছে। 

এই সব কিছুর মধ্যেই এখনকার সময়ে ভারতবাসী এর কাছে সব থেকে বেশি গুরুত্ব পেয়েছে অনলাইন শপিং সিস্টেম। এখনকার বেশিরভাগ লোকই অনলাইন শপিং করতে ইচ্ছা প্রকাশ করেন। স্পেশালি এই সংক্রমিত হওয়ার জের এ অনেকে অনলাইন এই শপিং করার জন্য প্রস্তুত। এতে সংক্রমিত হওয়ার সম্ভাবনাও কম আর বাড়ি থেকে বেরোতেও হচ্ছেনা আপনি ঘরে বসে আপনার চাওয়া জিনিস উপভোগ করতে পারেন। 

অনলাইন শপিং করার ক্ষেত্রে কিছু জিনিস অবশ্যই মাথায় রাখা দরকার কারণ এক্ষেত্রে আপনি বুঝে সুজে ব্যবহার না করলে আপনার  ফোন হ্যাক হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা থেকে যায়। আপনার মূল্যবান ডেটা এবং আই দি, পাসওয়ার্ড সবকিছুই পেতে পারেন হ্যাকাররা। আজ এরকম এ কয়েকটা স্টেপ জেনে রাখুন,,, 

1) সবসময় বিশস্ত এবং ভরসাপ্রাপ্ত ওয়েবসাইট দিয়ে শপিং করার চেষ্টা করুন কারণ তারা সামান্য কিছু টাকার জন্য নিজের সুনাম ছেড়ে আপনার ডেটা বিক্রি করবেনা। 

2) সামান্য কিছু ডিসকাউন্ট এর জন্য বা ফ্রি পপআপ এর জন্য কোনো ইনফরমেশন না নিয়ে যে সে ফিসিং সাইট এ যাবেন না। যদি দরকার থাকে সেই নির্দিষ্ট ওয়েবসাইট সম্পর্কে আগে ডিটেলস জানুন এবং তারপরই ঠিক করুন। 

3) সময়মতো আপনার ব্যাবহৃত ব্রাউসারটি আপডেট রাখুন। অনেকেই হয়তো জানেননা ব্রাউসার আপডেট রাখলে হ্যাকার এর কবল থেকে বাঁচতে অনেকটা সুবিধা হয়। 

4) অনলাইন পেমেন্ট করার ক্ষেত্রে, আপনার ক্রেডিট কার্ড বা ব্যাংক স্টেটমেন্ট নিয়মিত চেক করুন আর কোনো অনাকাংখিতো ট্রানসাকশান থাকলে সঙ্গে সঙ্গে ব্যাংক এ রিপোর্ট করুন। 

5) অনলাইন পেমেন্ট এর ক্ষেত্রে ডেবিট কার্ড এর বদলে ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করা বেশি সুরক্ষিত। কারণ ডেবিট কার্ড আপনার ব্যাংক একাউন্ট এর সঙ্গে যুক্ত কিন্তু ক্রেডিট কার্ড এ একটি নির্দিষ্ট বার একাউন্ট ব্যবহারের পর বিল না পে করা হলে ব্যবহার করা যায়না। 

6) যখনি পাসওয়ার্ড ক্রিয়েট করবেন চেষ্টা করবেন জানো পাসওয়ার্ডটি ছোট, বড়ো অক্ষর, নাম্বার এবং পাংচুয়েশান এর প্রয়োগ থাকে।

7) পাবলিক Wifi ইউস করে অনলাইন পেমেন্ট না করাই ভালো আর যদি এমার্জেন্সি থাকে তাহলে প্রয়োজন এ ভি পি  এন ব্যবহার করে কাজ করা। 

সময়ের সঙ্গে চলতে হলে সব কিছু এড়িয়ে নই সব কিছু কে শিখে এগিয়ে চলুন নাহলে বাকিদের থেকে আপনি পিছিয়ে পড়তে পারেন। সাবধানে থাকুন সুরক্ষিত থাকুন।

Post a Comment

0 Comments