Google Ads

যে চারটি জিনিস প্রত্যেকটা ছাত্র-ছাত্রীর অবশ্যই শিখে রাখা দরকার

 

যে চারটি জিনিস প্রত্যেকটা ছাত্র-ছাত্রীর অবশ্যই শিখে রাখা দরকার

কলকাতা, নিজস্ব সংবাদদাতা: বর্তমান সমাজে প্রতিনিয়তই সবকিছুই একের পর এক, দিনের পর দিন আপডেট হয়ে চলেছে। এখানে শুধুই যে নিত্যনতুন সফটওয়্যার অ্যাপ বা টেকনোলজি এর কথা বলা হচ্ছে তা কিন্তু নয়। এখানে মানুষের বাস্তবতা ভাবনা এবং সমাজ চরিত্রের কথা বলা হচ্ছে। বদলে যাচ্ছে পরিবেশ বদলাচ্ছে সমাজ। এরই মাঝে বদলাতে হবে আমাদেরও। এখনও অনেক মানুষই আছে যারা তাদের সীমিত কিছু জানা-শোনা জ্ঞানের মধ্যেই থেকে যেতে চায়। কিন্তু পরিবেশ তথা সমাজ চাই পরিবর্তন। সবকিছুই যখন আপডেট হচ্ছে, তাহলে জ্ঞান কেন নয়!!


এমন কতগুলো স্কিল বা কতগুলো বিষয় রয়েছে যেগুলো বর্তমান সমাজে প্রত্যেক ছাত্র-ছাত্রীদের শিখে রাখা অতি অবশ্যই দরকার।আমরা অনেকেই বিষয়গুলো আবছাভাবে জানলেও, সেগুলোর দিকে সেইভাবে নজর দিয়না। বর্তমান যুগে সবকিছুই অনলাইনে।  অনলাইনে কিছু কাজ করতে হলে যেকটা জিনিস অতি অবশ্যই সবাইকে জানা দরকার সেগুলো হলো


1. টাইপিং: এটা কোনো নতুন বিষয় না টাইপিং এর চাহিদা আগেও ছিল এবং বর্তমানেও আছে। তবে বর্তমানে সবকিছু অনলাইন এবং ডিজিটাল শিফ্ট হয়ে যাওয়ার কারণে এর চাহিদা আরো দিন দিন বেড়ে চলেছে। প্রায় প্রত্যেকটা অফিস তথা সাধারণ মুদিখানার দোকানেও টাইপিং এর লোক অবশ্যই চাওয়া হয়। এমনকি যদি সরকারি চাকরির ক্ষেত্রেও আপনি পরীক্ষা দিতে যান, সেখানে টাইপিং দক্ষতার একটি বিশেষ ক্ষেত্র হিসেবে পরিচিত হয়। প্রত্যেক ব্যাক্তি টাইপিং এর দক্ষতা অবশ্যই নেওয়া উচিত।



2. ইমেইলএর ক্ষেত্রে দক্ষতা: ইমেইল নামটা আমাদের সবার কাছেই খুব পরিচিত হলেও, আমাদের সবার কাছে ইমেইল আইডি থাকলেও, আমাদের মধ্যে অনেকেই আছে যারা ইমেইল করতে বা পাঠাতে পারি না। যদিও কথাগুলো শুনলে নিতান্তই হাস্যরসের সৃষ্টি হয় তাও এটাই বাস্তব। আর ইমেইল প্রত্যেকটা অফিসিয়াল কাজে ব্যবহৃত হয়। বর্তমানে অনেক ক্ষেত্রে পার্সোনাল কাজেও ব্যবহৃত হচ্ছে ঠিকই কিন্তু অফিস তথা টেকনোলজির ক্ষেত্রে এটির প্রাধান্য সবচেয়ে বেশি।


3. ভাষার শিক্ষা: আমরা সবাই কমবেশি বাংলা, ইংরেজি, হিন্দি তথা আরও একটা দুটো ভাষা জানি ঠিকই কিন্তু সেগুলো বলার ক্ষেত্রে মাঝেসাজে আটকে যায়। বাকিগুলো বাদ দিলেও ইংরেজি ভাষা বর্তমান সমাজে একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা আগেও প্রদান করেছে এবং বর্তমানেও করছে।  অন্যান্য ভাষার ক্ষেত্রে একটি সীমিত জায়গা থাকলেও ইংরেজি কিন্তু গ্লোবাল ভাবে সারাবিশ্ব চলে এবং বর্তমান যুগে সোশ্যাল মিডিয়া তথা অন্যান্য প্ল্যাটফর্ম এর মাধ্যমে আপনি এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় লোকের সঙ্গে কথোপকথন বা কোন বাণিজ্য সংক্রান্ত তথ্য আদান প্রদানের ক্ষেত্রে এটি একটি সেরা মাধ্যম হয়ে ওঠে।  আর আপনি নিজেই যদি ভাষাগত দিক থেকে পিছিয়ে থাকেন তাহলে অন্যকে কিভাবে বুঝাবেন?


4. এডিটিং: না এডিটিং কোন ট্রেন্ডের বিষয় নয়,  সবাই এডিটিং শিখছে করছে বলে নয়- বর্তমান সময়ে এডিটিং জানা সত্যিই একটা ভালো বিষয়।  বিজনেস কার্ড, লোগো ডিজাইন, এডিটিং, পোস্টার থামনেল ইত্যাদি বিষয়গুলো কিন্তু এডিটিং এর মাধ্যমেই নিয়ে আসা হয়। আর বর্তমানে কারো সামনে কোন কিছু প্রদর্শন করতে হলে এডিটিং একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় বলে বিবেচিত হয়।




Post a Comment

0 Comments