Google Ads

অ্যামাজন ফ্লাস সেলে হলে কিভাবে মোবাইল অর্ডার করবেন

 অ্যামাজন ফ্লাস সেলে হলে কিভাবে মোবাইল অর্ডার করবেন

কলকাতা, নিজস্ব সংবাদদাতা: আমরা অনেকেই আছি যারা এখনো কোনো কিছু কেনার জন্য বাড়ির সামনের বাজারকেই বেশি ভরসা করি। তবে বর্তমান প্রজন্মের আমাদের বেশিরভাগ লোকেই অনলাইন কেনাকাটা করতে পছন্দ করে। আর অনলাইন এ কেনাকাটার কথা বলা হলে সর্বপ্রথম নাম আসে আমাজন ও ফ্লিপকার্ট এর। মূলত এই দুটি অনলাইন শপিং প্লাটফর্ম সবার কাছে সব থেকে বেশি জনপ্রিয়তা পেয়েছে। অবশ্য এদের কাজের ধরণ এবং প্রতিনিয়ত নিত্য-নতুন অফার গ্রাহকদের বার বার আকর্ষণ করে।


অনলাইন শপিং কোম্পানি গ্রাহক আকর্ষণের জন্য যখন তখন নানারকমের ফ্লাস সেল করে থাকে। যেগুলো গ্রাহকদের কাছে অত্যাধিকভাবে গ্রহণীয়। ফ্লাস সেল সাধারণত 1 ঘন্টা থাকলেও, গ্রাহকদের ব্যাপক চাহিদা ও অস্থিরতা এর ফলে 2-5 মিনিট এর মধ্যেই নির্দিষ্ট প্রোডাক্ট আউট অফ স্টক হয়ে যায়। স্বাভাবিকভাবেই এত বেশি গ্রাহকদের মধ্যে ওই অফার এ অতো প্রোডাক্ট যোগান দেওয়া সম্ভব নয়। তাই বেশিভাগ সংখ্যক গ্রাহকরা ফ্লাস সেল এ অর্ডার প্লেস করতে পারেনা। আর এই পরিস্থিতির সৃষ্টি হয় মোবাইল এর সেল এর দিনে।


আমরা সকলেই কম বেশি টেকনিকালদিক তথা মোবাইল এর দিকে  একটু বেশি আকৃষ্ট হয়। তবে আমাজন, ফ্লিপকার্ট, এমআই স্টোর, ক্লাব ফ্যাক্টরি সব প্লাটফর্ম এই কিছু না কিছু পদ্ধতি রয়েছে, যেগুলো সঠিকভাবে অবলম্বন করলে আমরা সহজেই ফ্লাস সেল এ অর্ডার প্লেস করতে পারবো। আমাজন এর উপর সবার ভরসা, বিশ্বাস ও জনগণের ভিড় সবটাই বেশি। আমাজন এ ফ্লাস সেল এ যে যে ধাপ অবলম্বনের মাধ্যমে 100% অর্ডার ক্লেম করা যেতে পারে,,,,


#1) প্রথমেই একটা নতুন একাউন্ট: পুরোনো একাউন্ট হলেও চলবে তবে নতুন একাউন্ট হলে অর্ডার প্লেস এর সম্ভাবনা অনেকখানি বেড়ে যায়।


#2) আগে থেকে এড্রেস এবং অন্যান্য ডিটেলস সেভ করে রাখা: ফ্লাস সেল এ প্রোডাক্ট কম থাকে এবং গ্রাহক সংখ্যা অনেক বেশি তাই ফ্লাস সেল এর মূল সময়ে এক ঘন্টার মতো থাকলেও তা 2-3 মিনিটের মধ্যে সব আউট অফ স্টক হয়ে যায়। সেই কারণে আপনি যদি অর্ডার করার সময় এড্রেসটি টাইপ করতে যান সেখানেই 1-2 মিনিট শেষ হয়ে যায়। চেষ্টা করুন আগে থেকে এড্রেস এবং অন্যান্য ডিটেলস সেভ করে রেখে দেওয়ার।


#3) কিছু সময় আগে থেকেই অপেক্ষা করা:  ফ্লাস সেল একটা নির্দিষ্ট সময়ে ওপেন হয়। তাই সেই সময়ের জন্য আমাদেরকে অপেক্ষা করে থাকতে হয়। অনেক সময় আমাদের মনেই থাকেনা যে, এই সময় ফ্লাস সেল শুরু হচ্ছে। তাই চেষ্টা করুন সেল শুরু হওয়ার পাঁচ মিনিট আগে থেকেই নির্দিষ্ট এ্যাপ এ গিয়ে অপেক্ষা করা এবং বারবার রিফ্রেস করা।


#4) গুগল ক্রোম থেকে অর্ডার প্লেস করা: আমাদের বেশির ভাগ লোকরাই অ্যামাজন এর মূল অ্যাপটির মাধ্যমে অর্ডার প্লেস করি।তবে ফ্লাস সেলর  সময় যদি মূল অ্যাপের মাধ্যমে অর্ডার প্লেস করতে গেলে রিপ্লেস করার সময় অসুবিধা হতে পারে বারবার ব্যাক করা এবং ক্লিক করা অসুবিধাজনক।  এক্ষেত্রে গুগল ক্রোম থেকে যদি আমাজন ওয়েবসাইট খুলে নির্দিষ্ট এড্রেস সেভ করা একাউন্ট দ্বারা লগইন করে সেখান থেকে অর্ডার প্লেস করা যায় সেক্ষেত্রে রিফ্রেস করতে অনেকটাই সোজা হয়।


#5) গুগল ক্রোমে অনেক সময় ওয়েবসাইট খুলতে গিয়ে কিছু এড এসে যায়। যেগুলো অর্ডার প্রেস করার সময় সমস্যার সৃষ্টি করে।এক্ষেত্রে আপনি incognito tab ব্যবহার করতে পারেন।


#6) অ্যাড টু কার্ট করা: আমরা অনেকেই ফ্লাস সেল চালু হওয়ার পর অর্ডার করার জন্য বাই নাউ এর অপশন এ ক্লিক করে ফেলি।  কিন্তু অনেক বেশি গ্রাহক হওয়ার জন্য বাই নাউ করে প্রসেস করার আগেই আউট অফ স্টক হয়ে যায়।  অ্যামাজনের ক্ষেত্রে বাই নাউ এর জায়গায় নির্দিষ্ট সময়ে যদি অ্যাড টু কার্ড করা যায়, তাহলে ওই নির্দিষ্ট গ্রাহককে ওই নির্দিষ্ট প্রোডাক্ট কেনার জন্য অর্থাৎ এড্রেস টাইপ করে সমস্ত সেটিংস ক্লিয়ার করে কেনার জন্য 15 মিনিট সময় দেওয়া হয়।  ফলে 15 মিনিটের মধ্যে সহজে অর্ডার প্লেস করা যায়।


উপরোক্ত বিষয়গুলি লক্ষ করার মাধ্যমে অ্যামাজনের ফ্লাস সেল এর সময় 100% অর্ডার প্লেস করা যায়। তবে অনেকক্ষেত্রে পিনকোড এর কারনে পে অন ডেলিভারি এর অপশন থাকেনা। সেক্ষেত্রে আপনি পাশাপাশি কোনো জায়গার পিন কোড দিয়ে পে অন ডেলিভারি অপশনে এক্সেস করতে পারেন।

Post a Comment

0 Comments