Google Ads

তারুণ্যের সাফল্যে বাজিমাত ভারতের - ভাঙল অজিদের দীর্ঘ ৩২ বছরের অহংকার।

 

তারুণ্যের সাফল্যে বাজিমাত ভারতের - ভাঙল অজিদের দীর্ঘ ৩২ বছরের অহংকার।

কলকাতা, নিজস্ব সংবাদদাতা : ৩৬ রানের কলঙ্ক ও নানা সমালোচনা উপেক্ষা করে এই জয় যেন এক ঐতিহাসিক মুহূর্ত।অজিদের দীর্ঘ ৩২ বছরের গাব্বার অহংকার নিমেষেই চুরমার করে দিল টিম ইন্ডিয়া। আবারও ভারতীয় দলের এই সাফল্য ক্রিকেট প্রেমীদের হৃদয়ে সোনালি অক্ষরে গাঁথা হয়ে থাকবে।তারুণ্যের সাফল্যে মোড়া এই ভারতীয় দলের যতই তারিফ করা হবে তা যেন কমই হবে।


ম্যাচের অন্তিম তথা শেষ দিনে ভারতের কাছে জয়ের জন্য প্রয়োজন ছিল 324 রান।ক্রিজে তখনও ব্যাট হাতে দাঁড়িয়েছিলেন শুভামন গিল ও রোহিত শর্মা।কিন্তু শুরুতেই রোহিত শর্মার উইকেট হারিয়ে ভারত কিছুটা চাপে পড়ে যায়। এরপর পুজারা এবং গিল অত্যন্ত সাহসিকতার সহিত ব্যাটিং করে ভারতীয় দলকে এগিয়ে নিয়ে যান। মাত্র 9 রানের জন্য নিজের প্রথম আন্তর্জাতিক সেঞ্চুরী মিস করেন গিল।তিনি 91 রানে আউট হয়ে প্যাভিলিয়নে ফেরেন।তিনি আউট হয়ে গেলে অধিনায়ক রহানেও বেশিক্ষণ ক্রিজে টিকে থাকতে পারেননি 24 রানে ক্যাচ দিয়ে বসেন।এরপর ভারতের জয়ের নায়ক রীসাব পান্থ দলের ইনিংসকে এগিয়ে নিয়ে যান।

একদিকে পূজারার অনবদ্য ডিফেন্সিভ ব্যাটিং অন্যদিকে রীসাব পান্থের আক্রমণাত্মক ব্যাটিং অস্ট্রেলিয়াকে ভরাডুবিতে ফেলে দেয়।


পুজারা 56 রানের মাথায় আউট হয়ে গেলেও রীসভ তার আক্রমণাত্মক মেজাজে ব্যাটিং করে যান। এরপর মায়ানখ এবং সুন্দর দলের ইনিংসকে এগিয়ে নিয়ে গিয়ে আউট হলেও ভারতের জয়ের জন্য আর অসুবিধা হয়নি।শেষে পান্থ তার স্টাইলে কভার ড্রাইভ মেরে উইনিং শট খেলেন এবং ভারতের জয়ের মধ্যমনি হয়ে উঠেন। সিরিজে ২-১ ব্যাবধানে ভারত জয়লাভ করে বর্ডার গাভাস্কার ট্রফি নিজের পকেটে পুরে নেয়। জয়ের পর প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী থেকে শুরু করে সচিন তেন্ডুলকর ও আরও অনেকে ভারতীয় দলকে টুইট করে শুভেচ্ছা জানান।গাব্বার মাঠে ভারতের ত্রিবর্ণ রঞ্জিত পতাকা ওড়ানোর দৃশ্য ভারতের কাছে এক গর্বের মুহূর্ত।রইলো ভিডিওর কিছু মুহূর্ত 


Post a Comment

0 Comments